বন্দরে র‌্যাব-১১’র অভিযানে দুই চাঁদাবাজ গ্রেফতার

রকি হাসান : নারায়ণগঞ্জের বন্দরে র‌্যাব-১১’র অভিযানে আমিনুল ইসলাম (২০) ও মাহাবুব মোল্লা (২২) নামে দুই পরিবহন চাঁদাবাজকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ সময় তাদের কাছ থেকে চাঁদাবাজির নগদ ২,৮০০ টাকা ও চাঁদা আদায়ের তিনটি রসিদ বহি উদ্ধার করা হয়।

মঙ্গলবার (২৮ জুলাই) সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীনগরে অবস্থিত র‌্যাব-১১’র সদর দপ্তর থেকে সিপিএসসি’র কোম্পানী কমান্ডার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: জসিম উদ্দিন চৌধুরী, পিপিএম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব জানায়, গত সোমবার (২৭ জুলাই) বিকালে র‌্যাব-১১’র সিপিএসসি’র অভিযানে বন্দরের ফরাজীকান্দা বাজার ও মদনগঞ্জ বাসস্ট্যান্ডে চাঁদা আদায়কালে ওই দুই চাঁদাবাজকে হাতে-নাতে গ্রেফতার করা হয়। একটি চাঁদাবাজ চক্র দীর্ঘদিন ধরে বন্দরের মদনগঞ্জ ও ফরাজীকান্দা এলাকায় বাসস্ট্যান্ডে পণ্যবোঝাই ট্রাক, কাভার্ডভ্যান ও মালবাহী যানবাহনের চালকদের কাছ থেকে ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদর্শন করে জোরপূর্বক প্রতিদিন প্রতি ট্রাক থেকে ১০০ টাকা থেকে ১৫০ টাকা করে চাঁদা আদায় করে আসছে। ফরাজীকান্দা এলাকায় বাসস্ট্যান্ডে ট্রাক থেকে চাঁদা আদায়কালে আমিনুল ইসলামকে হাতে-নাতে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে চাঁদাবাজির নগদ ১,৬৫০ টাকা ও চাঁদা আদায়ের দুইটি রসিদ বহি জব্দ করা হয়।

পরবর্তীতে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বন্দরের মদনগঞ্জ এলাকায় বাসস্ট্যান্ডে ট্রাক থেকে চাঁদা আদায়কালে অপর চাদাঁবাজ মাহাবুব মোল্লাকে হাতে-নাতে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় মাহাবুব মোল্লার কাছ থেকে চাঁদাবাজির নগদ ১,১৫০ টাকা ও চাঁদা আদায়ের একটি রসিদ বহি জব্দ করা হয়। উক্ত গ্রেফতারকৃত ও পলাতক আসামীরা পরস্পর যোগসাজসে দীর্ঘদিন যাবৎ স্থানীয় ইজারাদার নাজিম উদ্দিনের প্রত্যক্ষ প্ররোচনা ও মদদে বন্দরের ফরাজীকান্দা ও মদনগঞ্জ এলাকায় চলাচলরত পণ্যবোঝাই ট্রাক, কাভার্ডভ্যান ও মালবাহী যানবাহনের চালকদের কাছ থেকে ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদর্শন করে জোরপূর্বক প্রতিদিন প্রতি ট্রাক থেকে ১০০ টাকা থেকে ১৫০ টাকা করে অবৈধভাবে চাঁদা আদায় করে আসছে।

ইজারাদার নাজিম উদ্দিন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন হতে মদনগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড থেকে চাঁদা আদায়ের জন্য ইজারা নিলেও তার প্রত্যক্ষ প্ররোচনা ও মদদে গ্রেফতারকৃতরা পরস্পর যোগসাজশে মদনগঞ্জ বাসস্ট্যান্ডের আনুমানিক এক কিলোমিটার সামনে ফরাজীকান্দা বাজারে সড়ক ও জনপথের রাস্তায় উল্লিখিত যানবাহনের চালকদের নিকট হতে গুরুতর আঘাত ও ক্ষয়ক্ষতির ভয়ভীতি দেখিয়ে বলপূর্বক চাঁদা আদায় করে আসছে। এ সকল চাঁদাবাজদের অত্যাচারে পণ্যবোঝাই ট্রাক, কাভার্ডভ্যান ও মালবাহী যানবাহনের চালকরা অতিষ্ঠ। চাঁদাবাজি বন্ধে র‌্যাবের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে বন্দর থানায় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও র‌্যাব নিশ্চিত করেছে।

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন

Back to top button