নারায়ণগঞ্জে ডিশ ব্যবসাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত-৯, গ্রেফতার-৩

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ডিশ ব্যবসা দখলকে কেন্দ্র করে সাবেক ও বর্তমান দুই কাউন্সিলরের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ৯ জন আহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার (৭ জুলাই) দুপুর ১টায় সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজী কদমতলী সরকারী এমডব্লিউ কলেজের সামনে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এসময় পুরো এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনাস্থল থেকে ৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, নাসিক ৭ নং ওয়ার্ডের আদমজী কদমতলী এলাকায় জাহাঙ্গীর খান, শাহাবুদ্দিন প্রধান, নুরুল ইসলাম প্রধান, মমতাজ ও নাসিক ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আলী হোসেন আলার ছেলে আলামিন ডিস ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিলো।

ডিস ব্যবসা দখল নিতে সোমবার (৬ জুলাই) রাতে নাসিক ৬নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম মন্ডলের শেল্টারে আমির হোসেন কুট্টি ও রাসেলের নেতৃত্বে লোকজন ডিশ লাইনের তার কেটে নিয়ে যায়।

তার কাটার ঘটনায় ডিশ ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর খান বাদী হয়ে মঙ্গলবার সকালে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। পরে দুপুর ১টার দিকে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোঃ মজিবুর রহমান অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করতে যান আদমজী কদমতলী সরকারী এমডব্লিউ কলেজের সামনে। এসময় পুলিশের উপস্থিতিতে আমির হোসেন কুট্টি ও রাসেলের নেতৃত্বে ১০০/১৫০ জন লোক লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলা করে। এসময় পুলিশের উপস্থিতিতে উভয় পক্ষের মধ্যে তুমুল সংঘর্ষ হয়। এতে নুরুল ইসলাম প্রধান, জাহাঙ্গীর খান, রনি, সুমন, হাসান ও ইসলামসহ উভয় পক্ষের কমপক্ষে ৯ জন আহত হয়। আহতদেরকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া জেনারেল) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এসময় ঘটনাস্থল থেকে ৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

এ বিষয়ে কথা হলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ কামরুল ফারুক জানান, সংঘর্ষের ঘটনায় ইছহাক, তুষার, আকাশ নামে ৩ জনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আইনশৃঙ্খলা অবনতি হয় এমন কাজ করলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন

Back to top button