স্বাধীনতার ৫০ বছর পরে এসেও যদি আমরা সাম্প্রদায়িকতার শিকার হই সেটা তো দুঃখজনক-নির্মল রঞ্জন গুহ

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি: বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ বলেছেন, স্বাধীনতার ৫০ বছর পরে এসেও যদি আমরা সাম্প্রদায়িকতার শিকার হই সেটা তো দুঃখজনক। আমি আগেই বলে রাখি আমি সঠিকভাবে কিছুই জানি না পুরো বিষয়টি। যদি এরকম কিছু হয়ে থাকে আমি অনুরোধ করবো যদি এর সাথে কোন অশুভ শক্তি থাকে বা দলের কাউকে ভুল বুঝিয়ে দলের ক্ষতি করার চেষ্টা করা হয় তাহলে তা খুবই দুঃখজনক। একজন আওয়ামী লীগ নেতা এবং আওয়ামী লীগ পরিবারের লোক যদি দেবোত্তর সম্পত্তিতে হস্তক্ষেপ করে তবে এর চেয়ে দুঃখের আর কিছু হতে পারে না। মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নগরীর খানপুরে সরস্বতী পূজা মন্ডপ পরিদর্শনে এসে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, আমি কারো বিরুদ্ধে কথা বলছি না। আমি শুধু এ দেশের নাগরিক হিসেবে আমি আমার ন্যায্য অধিকারটুকু চাই। একজন সাম্প্রদায়িক লোক কখনো আওয়ামী লীগার হতে পারে না। আমি আশা করবো আওয়ামীলীগের যারা আছেন তারা সত্য ঘটনা উদঘাটন করবেন। এখানকার লোকাল রাজনীতির একটা ভিন্ন প্রেক্ষাপট রয়েছে আমি সেটার অংশীদার হতে চাই না। তবে অনুরোধ করতে পারি নিজেদের মধ্যে হানাহানি বন্ধ করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগের শত্রু তো আওয়ামী লীগ না। আওয়ামী লীগের শত্রু যারা জামায়াত ও বিএনপিকে লালন পালন করেছে। আওয়ামী লীগ আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে কথা বলবে এতে দলের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হবে এটাই তো স্বাভাবিক। সবাইকে অনুরোধ করবে মিলেমিশে প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করুন।

নির্মল রঞ্জন বলেন, আমাদের শামীম ভাইয়ের যে পরিবার তার পরিবার খুবই ত্যাগী পরিবার। অন্যদিকে মেয়র আইভীর বাবা চুনকা সাহেব উনারও অনেক নাম-ডাক রয়েছে। নারায়ণগঞ্জ হল নেতার খনি। এই নেতারা যদি ঐক্যবদ্ধ না হয়ে কাজ করে তাহলে অসাম্প্রদায়িক চেতনা মাথা চাড়া দিয়ে উঠবে।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জুয়েল হোসেনের সঞ্চালনায় আরও উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, কার্যনির্বাহী সদস্য নির্মল ঘোষ, উপ-মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা উর্মি ঘোষ, পূজা উদযাপন পরিষদ নারায়ণগঞ্জ শাখার সাধারণ সম্পাদক শিখন সরকার শিপন প্রমুখ।

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন

Back to top button