নারায়ণগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে হামলা ভাংচুরের ঘটনায় কানাডা প্রবাশী আটক

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জে আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে হামলা ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। এতে আহত হয়েছেন অফিসের কম্পিউটার অপারেটর মো: মহসিন ইসলাম। রবিবার (১৫ নভেম্বর) বেলা ১২ টার দিকে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার রঘুনাথপুর জিগাতলা এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। এসময় অফিসের কর্মকর্তারা হামলাকারী কানাডা প্রবাসী আজমল হোসেন (৩২) কে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। এ ঘটনায় জেলা পুলিশ সুপার মো: জায়েদুল আলম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন ।

আটক আজমল হোসেন নারায়ণগঞ্জ শহরের ৫৩ উত্তর চাষাঢ়া এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা। তিনি কানাডার প্রবাসী ও সে দেশের নাগরিক। ছুটিতে দেশে এসেছেন। স্ত্রী সন্তান নিয়ে আবার কানাডায় চলে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক মাহমুদুল হাসান জানান, বেলা ১২ টার দিকে আজমল হোসেন তার তিনমাস বয়সী মেয়ে আলিজে মাহনুর হোসেন এর পাসপোর্ট করতে আসেন। তার আবেদন সত্যায়িত ও টাকা জমা দেওয়ার ব্যাংক ড্রাফ রিসিট না থাকায় তাকে এগুলোসহ আবেদন করতে বলা হয়। তখন তিনি উত্তেজিত হয়ে অফিসের গ্লাস ও কম্পিউটার ভাংচুর করেন। এসময় ভাঙা গ্লাসের আঘাতে কম্পিউটার অপারেটর মো: মহসিন ইসলাম রক্তাক্ত জখম হয়। তাকে শহরের খানপুর হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে। অনিয়মের মাধ্যমে পাসপোর্ট করতে রাজি না হওয়ায় অফিসে হামলার অভিযোগে তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। এর আগেও তার স্ত্রীর পাসপোর্ট করতে এসে তিনি অফিসের এক আনসার সদস্যকে মারধর করেছিলেন।

হামলাকারী আজমল হোসেন নিজের ভুল স্বীকার করে বলেন, আমার আবেদনে কিছু মিসিং থাকার কারেণ তা ভাল ভাবে না বলে আমার সঙ্গে অমানবিক আচরণ করা হয়। আমার আবেদন ছুরে ফেলে দিলে বাকবিতন্ডা হয়। তখন অফিসের লোকজন আমাকে বেধরক ভাবে মারধর করেছে। তখন আমি নিজেকে নিয়ন্ত্রন রাখতে পারিনি।

এ বিষয়ে পুলিশ সুপার মো: জায়েদুল আলম কোন মন্তব্য না করলেও ফতুল্লা থানার ওসি (তদন্ত) মো: শফিকুল ইসলাম জানান, তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন

Back to top button